Goalundo-News-গোয়ালন্দ-নিউজ

Mail: [email protected]
Web: http://goalundonews.blogspot.com/
http://www.facebook.com/goalundonews

এক নজরে গোয়ালন্দঃ

উপজেলার নামঃ গোয়ালন্দ
আয়তনঃ ১২২ বর্গ কিলোমিটার
জনসংখ্যাঃ ১,৩৮,২৫৭ জন
ঘনত্বঃ ৭৮৭ জন প্রতিবর্গ কিলোমিটার
নির্বাচনী এলাকাঃ রাজবাড়ী -১
থানাঃ ০১ টি
পৌরসভাঃ ০১টি
ইউনিয়নঃ ০৪টি
মৌজাঃ ১১৫
সরকারী হাসপাতালঃ ১টি
স্বাস্থ্য কেন্দ্র/ক্লিনিকঃ ০৩টি
অফিসার্স ক্লাবঃ০১ টি
পৌষ্ট অফিসঃ০১টি
নদ-নদীঃ০১টি
হাট-বাজারঃ০৫টি
ব্যাংকঃ ০৩ টি


#ভৌগলিক পরিচিতি
রাজবাড়ী জেলা ঢাকা বিভাগের অন্তর্গত। আয়তন ১২০৪ বর্গ কিলোমিটার। রাজবাড়ী জেলা ২৩০৩৫′-২৩০৫৫′ উত্তর অক্ষাংশএবং৮৯০০৯′-৮৯০৫৫′ পূর্ব দ্রাঘিমাংশেঅবস্থিত। উত্তরে পাবনা জেলা, দক্ষিণে ফরিদপুর ও মাগুরা জেলা, পূর্বে মানিকগঞ্জ জেলা, পশ্চিমে কুষ্টিয়া ও ঝিনাইদহ জেলা। নদী বিধৌত পদ্মার পলি মাটি দিয়ে এই জেলার অধিকাংশ ভূমি গঠিত। এই জেলার প্রধান নদী পদ্মা, গড়াই, হড়াই ও চন্দনা। বার্ষিক সর্বোচ্চ গড় তাপমাত্রা ৩৫.৮০সেলসিয়াস এবং সর্বনিম্ন ১২.৬০সেলসিয়াস। বার্ষিক বৃষ্টিপাত ২১০৫ মিমি। বাতাসের আর্দ্রতা ৭৫%। ১৯৬১, ১৯৭১, ১৯৮৭ ও ১৯৮৮ সালের বন্যায় রাজবাড়ীর ব্যাপক ক্ষতিসাধিত হয়। ১৯৮৭ ও ১৯৮৮ সালের বন্যায় শহরের ৯৭ ভাগ বাড়ীঘর ৩ ফুট পানির নিচে তলিয়ে যায়।


#ইউনিয়নসমূহঃ

১.দৌলতদিয়া ইউনিয়ন
২.দেবগ্রাম ইউনিয়ন
৩.ছোটভাকলা ইউনিয়ন
৪.উজানচর ইউনিয়ন

#গোয়ালন্দ উপজেলার পটভূমিঃ

১৮ শতাব্দীর শেষভাগে কুঁশাহাটা ঘাটে গোয়ালন্দের গোরাপত্তন হয়। দৌলতদিযা ইউনিয়নের কুঁশাহাট মৌজার পার্শ্বেই ছোট গোয়ালন্দ নামের একটি ছোট মৌজার সন্ধান পাওয়া যায় যা পাবনা জেলার সীমান সংলগ্ন পদ্মা যমুনার সীমা রেখার কাছাকাছি । পদ্মা যমুনার যৌবন জৌলুসের দিনে এক জীঘাংসু প্রকৃতির জলদস্যুর বিচরণ ছিল এ অঞ্চলে। গঞ্জালিশ নামের এ জলদস্যু পদ্মা মেঘনা যমুনায় ডাকাতি করে বেড়াত, যতদূর জানা যায় তার নামানুসারেই গঞ্জালিশ থেকে কালক্রমে গোয়ালন্দ নামের উৎপত্তি । গোয়ালন্দ ঘাটে গ্যাঞ্জেল ঘাট নামক স্থানে অতীতে জাহাজ নোঙ্গর করা হতো। এ পর্যন্ত ১১ বার নদী ভাঙ্গন/চর পড়ার কারণে গোয়ালন্দ ঘাট স্থানান্তরিত করা হয়েছে।

#মুক্তিযুদ্ধে গোয়ালন্দ

১৯৭১ সনে বাংলাদেশে স্বাধীনতা সংগ্রামে পাক বাহিনী যখন এদেশের নিরীহ মানুষের উপর নির্বিচারে বৃষ্টির মতো গুলিবর্ষন করতে করতে একের পর এক গ্রাম জ্বালিয়ে পুড়িয়ে ছারখার করতে করতে দেশের অভ্যন্তরে প্রবেশ করে তখন ২৫ এপ্রিল ভোর রাতে গোয়ালদের বাহাদুরপুর নামক স্থানে হাজার হাজার জনতা তীর ধনুক, লাঠি, দা, বটি, কাস্তে নিয়ে পুলিশ আনসারদের সাথে সমবেত হয়। পাকবাহিনীর গোলার আঘাতে সব প্রতিরোধ ভেঙ্গে লন্ডভন্ড হয়ে যায় এবং আনসার কমান্ডর বীর মুক্তিযোদ্ধা মহিউদ্দিন শহীদ হন।

হাটবাজার
০৫ টি হাট বাজার হয়েছে।
গোয়ালন্দ, দৌলতদিয়া, কাটাখালি, জামতলা, হামিদ মৃধার হাট


সুত্রঃ http://goalanda.rajbari.gov.bd/